অফিসে যেতে প্রতিদিন ৩৮৫ মাইল পাড়ি!

অফিসে যেতে প্রতিদিন ৩৮৫ মাইল পাড়ি!

84
0
SHARE

লস অ্যাঞ্জেলেসে তাঁর বাড়ি থেকে বিমানবন্দরের দূরত্ব প্রায় ২০ কিলোমিটার। প্লেনে সানফ্রান্সিসকো বিমানবন্দরে যেতে তাঁকে আকাশপথে পাড়ি দিতে হয় ৫৬৮ কিলোমিটার। এরপর সানফ্রান্সিসকো বিমানবন্দর থেকে অফিসে যান তিনি। এই পথটুকু ৩২ কিলোমিটার। সব মিলিয়ে ৬২০ কিলোমিটার বা প্রায় ৩৮৫ মাইল! এই বিশাল পথ পাড়ি দিয়ে প্রতিদিন অফিসে যান তিনি। আবার অফিস শেষে একইভাবে ফিরে আসেন বাড়িতে।

এই ব্যক্তির নাম কার্ট ফন ব্যাডিনস্কি। মোটিভ নামের একটি কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা তিনি। চার বছর আগে এ কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন তিনি। প্রথমে লস অ্যাঞ্জেলেসেই শুরু করেছিলেন এই প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের কাজ। পরে ব্যবসার প্রয়োজনে সানফ্রান্সিসকোতে চলে যেতে হয়। কিন্তু কার্ট ফনের পরিবার থাকে লস অ্যাঞ্জেলেসের বাড়িতে। আবার পরিবার ছেড়ে এত দূর থাকাও তাঁর পক্ষে সম্ভব নয়। কারণ, পরিবারের তাঁকে প্রয়োজন। অগত্যা প্রতিদিনের এই ভ্রমণ!

কার্ট ফন বলেন, ‘যখন কেউ শোনে যে আমি প্রতিদিন সানফ্রান্সিসকো যাওয়া-আসা করি, তখন তারা বেশ আশ্চর্য হয়। কেউ কেউ জিজ্ঞেস করে যে প্রতিদিন? তুমি প্রতিদিনই যাও? আমি প্রতিদিন লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে সানফ্রান্সিসকো যাই, এটি বিশ্বাস করতে তাদের বেশ কষ্ট হয়।’

প্লেনে বসে বিবিসিকে এ কথাগুলো বলার সময় হাসছিলেন কার্ট। প্রতিদিন ভোর পাঁচটায় ঘুম থেকে ওঠেন তিনি। এরপর দাঁত মাজেন, স্নান করেন, ব্যাগ গোছান। পরে গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে পড়েন বিমানবন্দরের উদ্দেশে। সেখানে থাকে একটি কমিউটার প্লেন। আটজন যাত্রী নিয়ে সানফ্রান্সিসকোর দিকে উড়ে যায় সেটি। দেড় ঘণ্টার বিমানভ্রমণ শেষে সকাল সাড়ে সাতটায় সানফ্রান্সিসকোতে পা রাখেন কার্ট। বিমানবন্দরে থাকা ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে অফিসে যেতে সড়কপথে লাগে আরও এক ঘণ্টা। অফিসে পৌঁছান ঠিক সকাল সাড়ে আটটায়।

অবশ্য প্রতিকূল আবহাওয়া থাকলে সময় কিছুটা বেশি লাগে। আবার সড়কপথে যানজট থাকলেও দেরি হয়। তবে অফিসে পৌঁছাতে কখনোই ঘড়ির কাঁটা নয়টা পেরোয় না।

প্রতিদিন অফিসে যাওয়ার এই হ্যাপা নিয়ে অবশ্য মোটেও চিন্তিত নন কার্ট। তিনি বলেন, ‘আমার কোম্পানির জন্য লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে সানফ্রান্সিসকো আসা প্রয়োজন ছিল। আবার পুরো পরিবার নিয়ে সানফ্রান্সিসকো চলে আসার বাস্তবতাও নেই। তাই দুদিকেই গুরুত্ব দিতে হয় আমাকে। এ জন্যই এভাবে প্রতিদিন প্রায় ৪০০ মাইল পাড়ি দিতে হয়।’

কিন্তু প্রতিদিন এতটা পথ পাড়ি দিতে কত খরচ হয় এই তরুণ উদ্যোক্তার? যেহেতু প্রতিদিনই বিমানে উঠতে হয়, তাই একটি ছোট্ট পরিবহন বিমান কোম্পানির আনলিমিটেড অফার কিনেছেন তিনি। এ জন্য কার্ট ফনের খরচ হয় মাসে ২ হাজার ৩০০ ডলার। আর বাকিটা তো ব্যক্তিগত গাড়ির জ্বালানি খরচ।

তবে বিমানভ্রমণের সময়টা বসে থাকেন না কার্ট। ওই সময়ে অফিসের কিছু কাজ সেরে ফেলেন তিনি। জানালেন নিত্যকার ভ্রমণের কিছু মজার দিকও। কার্ট বলেন, ‘লস অ্যাঞ্জেলেসে হয়তো থাকে রোদ, সানফ্রান্সিসকো এলে পাই বৃষ্টি। অনেক সময় উল্টোটাও হয়। এটি বেশ উপভোগ্য।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY