অভিজ্ঞতাই বাংলাদেশের শক্তি

অভিজ্ঞতাই বাংলাদেশের শক্তি

69
0
SHARE

এই মুহূর্তে ক্রিকেট দুনিয়ায় অন্যতম অভিজ্ঞ এক দল বাংলাদেশ। ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত রেকর্ড অন্তত সেটিই জানাচ্ছে। মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল কিংবা মাহমুদউল্লাহ—এঁরা সবাই জাতীয় দলের হয়ে খেলছেন ১০ বছর কিংবা এর চেয়েও বেশি সময় ধরে। বাংলাদেশ দলের এই পাঁচ সিনিয়র ক্রিকেটারের ঝুলিতে সম্মিলিতভাবে ২২১টি টেস্ট, ৮৫০ ওয়ানডে আর ২৮৬ টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচের অমূল্য অভিজ্ঞতা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এই পাঁচ ক্রিকেটার বাংলাদেশের জন্য ‘ম্যাচ উইনার’ হিসেবেই নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এই ক্রিকেটাররাই যে বাংলাদেশের বড় শক্তি, এটা মানেন সবাই। মাহমুদউল্লাহও আজ বললেন, বাংলাদেশের বড় শক্তি এর অভিজ্ঞতা।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মাহমুদউল্লাহর ১০ বছর পূর্ণ হলো। আজ কথা প্রসঙ্গে তাই বারবার এল দশকপূর্তি। মাহমুদউল্লাহ বললেন, ‘মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিকও ১০ বছর পূর্ণ করেছে। আশা করছি, তারা আরও অনেক দিন খেলবে। এই ক্রিকেটারদের অভিজ্ঞতার কারণে আমাদের দলটা খুব ভালো। ভালো লাগছে বাংলাদেশের জার্সি গায়ে ১০ বছর পূর্ণ করলাম। চেষ্টা করব আরও বেশ কয়েক বছর পারফর্ম করে যেতে। এটি আমার ব্যক্তিগত ক্যারিয়ারের একটা ইতিবাচক দিক। আমি মনে করি, এতে আমার দায়িত্ব অনেক বেড়ে গেছে।’
বাড়তি দায়িত্বটা যে অনেক চ্যালেঞ্জিং, সেটা জানেন মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু লক্ষ্যপূরণটা যেভাবেই হোক করতে চান দলের ব্যাটিংয়ের অন্যতম এই ভরসা, ‘আসলে ১০ বছরে যে অভিজ্ঞতা, সেটা কাজে লাগানোই আসল। প্রতিটি দিনই চ্যালেঞ্জিং, থিতু হওয়া যায় না। যত দিন যাবে, আপনাকে নিয়ে প্রতিপক্ষ দলগুলো তত বেশি গবেষণা করে ফেলবে। তবে আমি মানসিকভাবে আগের চেয়ে অনেক বেশি গোছালো। এটা বুঝতে পারি আমার শক্তি আছে। এগুলো নিয়ে আমি সব সময় কাজ করি। আমি জানি, কষ্টের কোনো বিকল্প নেই। এটা ধরে রাখাই জরুরি।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY