টিকিট চাই-ই চাই

টিকিট চাই-ই চাই

140
0
SHARE

ঈদে ঘরে ফেরা মানুষের জন্য বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। আজ সোমবার সকাল ছয়টা থেকে রাজধানীর বিভিন্ন বাস কাউন্টারে অগ্রিম টিকিট বিক্রি হচ্ছে।

ঢাকায় আজ বৃষ্টি। এর মধ্যেই টিকিট কিনতে বাস কাউন্টারের সামনে লাইন ধরেছে লোকজন। সাহ্রির পর থেকে চলছে এ তোড়জোড়। তাঁরা বলেছেন, ঈদে বাড়ি যেতে টিকিট চাই-ই চাই। তাই ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করতেও সমস্যা নেই। সকালে বিভিন্ন কোম্পানির বাস কাউন্টারের সামনে অগ্রিম টিকিট কিনতে আগ্রহী নারী-পুরুষের দীর্ঘ সারি দেখা গেছে। বাস কাউন্টারগুলো থেকে বলা হচ্ছে, ২৬ জুন ঈদুল ফিতরের সম্ভাব্য দিন ধরে ২০-২৫ জুনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে।
রাজধানীর গাবতলী বালুর মাঠসংলগ্ন হানিফ পরিবহনের বাসের কাউন্টারে টিকিট কিনতে এসে ছিলেন একটি ট্রেনিং প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী নাজমা আক্তার। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, খুব ভোরে এসেছেন। দিনাজপুর যেতে ২৩ জুনের টিকিট চেয়েছিলেন। পেয়েছেন ২১ জুনের টিকিট। এখন তাঁকে এক দিন ছুটি নিতে হবে।
শত শত লোক এখনো সারিতে দাঁড়িয়ে। এ অবস্থায় বাসের অগ্রিম টিকিট পেয়ে আনন্দিত এক তরুণী। ছবিটি আজ সোমবার রাজধানীর গাবতলী বাস কাউন্টারের সামনে থেকে তোলা। ২২ জুন জয়পুরহাটে যাওয়ার টিকিট সংগ্রহ করতে আজ ভোর পাঁচটার দিকে আজিজুল ইসলাম ও তাজুল ইসলাম নামের দুই ভাই এসেছেন গাবতলীতে। আজিজুল বলেন, তাঁরা রাতের টিকিট চেয়ে দিনের টিকিট পেয়েছেন। তার ওপর ২০০ টাকা ভাড়া বেশি দিতে হয়েছে। তবে পরিবারের সব সদস্য মিলে এক সঙ্গে বাড়িতে যেতে পারবেন বলে বেশি দামের টিকিটে আক্ষেপ নেই। এই দুই ভাই মোট পাঁচটি টিকিট কিনেছেন।
নাবিল পরিবহন, শ্যামলী পরিবহনসহ বিভিন্ন বাস কাউন্টারের সামনে টিকিট প্রত্যাশীদের ভিড় দেখা গেছে। রংপুরের টিকিট কেনার জন্য গাবতলীর নাবিল পরিবহনের সামনে সাহরীর পর দাঁড়িয়েছেন আবদুল হালিম নামের এক বেসরকারি চাকুরে। সকালে প্রথম আলোকে তিনি বলেন, বৃষ্টিতে ভিজে গেছি। এরপরও কোনো কষ্ট নেই। যদি কাঙ্ক্ষিত টিকিট পাই, তাতেই খুশি। তিনি ২২ তারিখ রাতের টিকিট খুঁজছিলেন। প্রথম আলোকে বলেন, তিনি কাঙ্ক্ষিত বাসের টিকিট পেয়েছেন বলে খুব খুশি। পরিবার নিয়ে রংপুরে ঈদের ছুটি কাটাতে যাবেন।
হানিফ পরিবহনের মহাব্যবস্থাপক মোশারফ হোসেন বলেন, ভোর ছয়টা থেকে তাঁরা টিকিট দেওয়া শুরু করেছেন। আজ ২২ ও ২৩ জুনের টিকিটের চাহিদা বেশি। বিভিন্ন গন্তব্যের এই দুটি দিনের টিকিট সকাল ১০টার মধ্যে প্রায় শেষ হয়ে গেছে।
সারিতে দাঁড়িয়ে কষ্ট সহ্য করে অবশেষে মিলেছে বাসের অগ্রিম টিকিট। ছবিটি আজ সোমবার রাজধানীর গাবতলী বাস কাউন্টারের সামনে থেকে তোলা। বাড়তি ভাড়ার অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে হানিফ পরিবহনের এই মহাব্যবস্থাপক বলেন, এ ধরনের অভিযোগ ঠিক নয়। তাঁরা নির্ধারিত ভাড়াই নিচ্ছেন।
সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, আজ বিক্রি শুরু হলেও আগে থেকেই অনেকে বাসের অগ্রিম টিকিটের জন্য কাউন্টারগুলোতে অনুরোধ করে রেখেছিলেন।
সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, ২৭ জুন ঈদুল ফিতরের সম্ভাব্য দিন ধরে ২২ ও ২৩ জুন বাড়ি ফেরার জন্য সবচেয়ে ভালো সময় বলে মনে করা হচ্ছে। ২৭ জুন ঈদ হলে আগের দিন সোমবার থেকে ঈদের ছুটি শুরু হবে। এর আগে ২২ জুন বৃহস্পতিবার। পরদিন ২৩ ও ২৪ জুন শুক্র ও শনিবার নিয়মিত ছুটি থাকে।
বাস মালিক সমিতি ও ট্রেন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ২৭ জুন ঈদ হলে সবচেয়ে বেশি চাপ থাকবে ২২ ও ২৩ তারিখের টিকিটের। ২২ জুন বৃহস্পতিবার। ওই দিন সরকারি চাকরিজীবীসহ অনেক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবীরা শেষ কর্মদিবস ধরে অফিস শেষে ঢাকা ছাড়বেন। যাঁরা এই দিনের টিকিট পাবেন না, তাঁরা পরদিন, অর্থাৎ, শুক্রবার ঢাকা ছাড়বেন। এ ক্ষেত্রে কম চাপ থাকবে ২৪ থেকে ২৬ জুন।
বৃষ্টি উপেক্ষা করে অগ্রিম টিকিট কিনতে বাস কাউন্টারের সামনে মানুষের ভিড়। ছবিটি আজ সোমবার রাজধানীর গাবতলী থেকে তোলা। অনলাইনে বাসের টিকিট: অনলাইনে বাসের টিকিট দিচ্ছে সহজ ডটকম নামের একটি প্রতিষ্ঠান। জানতে চাইলে সহজ ডটকমের জ্যেষ্ঠ বিপণন ব্যবস্থাপক মির্জা মুহাম্মাদ ইলিয়াস প্রথম আলোকে বলেন, আমরা অনলাইন ও অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট বিক্রি করছি। ভালো সাড়া পাচ্ছি। সকাল থেকে অনেক মানুষ এটি ব্যবহারের কারণে কিছুটা চাপ ছিল। আজ প্রায় ৩০ হাজার মানুষ ওয়েবসাইট ও অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট কেনার চেষ্টা করেছেন। তিনি জানান, তাঁরা প্রায় ৪৩টি বাসের সঙ্গে চুক্তি করে টিকিট বিক্রি করছেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY