যশোরে দুটি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব

যশোরে দুটি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব

98
0
SHARE

যশোর সদর ও ঝিকরগাছা উপজেলায় দুটি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের সম্ভাবনা রয়েছে। এ দুটি অঞ্চল স্থাপনের জন্য ৯০০ একর জমি অধিগ্রহণসহ দুটি প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হচ্ছে। আজ সোমবার বিকেলে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী যশোর সার্কিট হাউস মিলনায়তনে এসব কথা বলেন।

যশোরে দুটি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি দল সোমবার সকাল থেকে যশোর সদর, শার্শা ও ঝিকরগাছা উপজেলার চারটি এলাকা পরিদর্শন করে প্রাথমিক সম্ভাব্যতা যাচাই করেন। পরে বিকেলে সরকারি কর্মকর্তা ও সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

মতবিনিময় সভায় পবন চৌধুরী জানান, যশোর থেকে গত অর্থবছরে চার হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে; যা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা করা হয়েছে। এদিক বিবেচনায় উন্নয়নের জন্য যশোর জেলা বেশি দাবিদার। তা ছাড়া যশোরের সঙ্গে সারা দেশের সড়কপথ, রেলপথ ও আকাশপথের ভালো যোগাযোগব্যবস্থা রয়েছে। এখানে বিমানবন্দর, নৌবন্দর ও বৃহত্তম স্থলবন্দর রয়েছে। ঢাকা ও চট্টগ্রামের পরে বৃহত্তর বিনিয়োগের সম্ভাবনাময় অঞ্চল যশোর। এ কারণে এ জেলায় দুটি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের প্রস্তাব করা হচ্ছে। সে লক্ষ্যে যশোর সদর, শার্শা ও ঝিকরগাছা উপজেলার সম্ভাব্য চারটি এলাকা পরিদর্শন করে যশোর সদরের আরবপুর ও ঝিকরগাছা উপজেলায় দুটি অঞ্চলের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর কাছে চলতি মাসেই পাঠানো হবে। চলতি মাসের বোর্ড সভায় অঞ্চল দুটি পাস হয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

মতবিনিময় সভায় জানানো হয়, ভারত থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে প্রতিদিন শত শত বাস, ট্রাকসহ বিভিন্ন গাড়ির মূল কাঠামো অংশ (চ্যাচিজ) আমদানি করা হয়। এ জন্য আরবপুর এলাকায় ৫০০ একর জমির ওপর অটোমোবাইল শিল্পাঞ্চল ও যশোর-বেনাপোল সড়কে ঝিকরগাছা উপজেলায় ইলেকট্রনিকস, টেক্সটাইল, ওষুধ, তৈরি পোশাকসহ বিভিন্ন ধরনের শিল্পপ্রতিষ্ঠান নিয়ে আরেকটি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হবে।

পবন চৌধুরী বলেন, যশোরে দুটি শিল্প অঞ্চল স্থাপন করা হলে দেশি-বিদেশি অনেক বড় কোম্পানি বিনিয়োগ করবে। এখানকার উৎপাদিত পণ্যের রপ্তানি বাড়বে। মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে উন্নত দেশে পরিণত হবে। ফলে এ অঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রার মান বদলে যাবে। তিনি বলেন, সারা দেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন। এর মধ্যে পাঁচটি অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করে উৎপাদন শুরু হয়েছে। ২৩টি অঞ্চলের উন্নয়নকাজ চলছে। এ পর্যন্ত মোট ৯৪টি অঞ্চলের অনুমোদন পাওয়া গেছে। অবশিষ্ট ছয়টি অঞ্চলের অনুমোদন এ মাসের বোর্ড সভায় দেওয়া হবে।

যশোরের জেলা প্রশাসক মো. আশরাফ উদ্দীনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় স্থানীয় সরকার বিভাগ, যশোরের উপপরিচালক মাজেদুর রহমান খানসহ স্থানীয় সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY