সারাদেশে বেড়েছে খুন ধর্ষণের মতো অপরাধ এপ্রিল-জুনে দৈনিক ১০ খুন, ১২ ধর্ষণ...

সারাদেশে বেড়েছে খুন ধর্ষণের মতো অপরাধ এপ্রিল-জুনে দৈনিক ১০ খুন, ১২ ধর্ষণ আতঙ্কিত হবার কিছু নেই : পুলিশ

92
0
SHARE
সারা দেশে খুন, ধর্ষণ, ডাকাতির মতো অপরাধের সংখ্যা বেড়েছে। গত তিন মাসে (এপ্রিল-জুন ২০১৭) সারাদেশে খুন হয়েছে ৯৫০ জন আর ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ১১০৯টি। অর্থাত্, প্রতিদিন গড়ে খুনের ঘটনা ঘটছে ১০টি আর ধর্ষণের ঘটনা ১২টি। এ তথ্য খোদ পুলিশ সদর দফতরের। গত সপ্তাহে ত্রৈমাসিক অপরাধ সভায় উপস্থাপিত প্রতিবেদনে এ তথ্য উপস্থাপন করা হয়। তবে পুলিশ দাবি করেছে, দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ নিয়ে আতংকিত হবার কিছু নেই।
প্রাপ্ত তথ্য থেকে জানা যায়, জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত খুনের ঘটনা ছিল ৮১০টি। এপ্রিল-জুনের মেয়াদে বেশি খুনের ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহ, কক্সবাজার, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, হবিগঞ্জ ও চট্টগ্রামে। অপরদিকে জানুয়ারি-মার্চে খুনের শীর্ষে ছিল ময়মনসিংহ, কক্সবাজার, গাজীপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নরসিংদী ও ঢাকা জেলা। অপরদিকে ২০১৬ সালের এপ্রিল-জুন মেয়াদে খুনের ঘটনা ছিল ৯৭৮টি।
অন্যদিকে, চলতি বছরের এপ্রিল-জুনে ধর্ষণের ঘটনা বেশি ঘটেছে বরগুনা, টাঙ্গাইল, কুমিল্লা, গাজীপুর, হবিগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ ও ময়মনসিংহে। অপরদিকে জানুয়ারি-মার্চ মেয়াদে ধর্ষণ বেশি ঘটেছে ময়মনসিংহ, বরগুনা, সিরাজগঞ্জ, গাইবান্ধা, গাজীপুর, রংপুর ও নীলফামারীতে।
খুন, ধর্ষণসহ অন্যান্য অপরাধ বৃদ্ধি পাওয়ার ব্যাপারে পুলিশ সদর দফতরের ডিআইজি (প্রশাসন) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন (ডিআইজি ক্রাইমের দায়িত্বে) ইত্তেফাককে বলেন, বিগত কয়েক বছরের অপরাধ পরিসংখ্যান পর্যালোচনা করে দেখেছি, বছরের এই সময়টা (এপ্রিল থেকে আগস্ট) খুনসহ অন্যান্য অপরাধ বৃদ্ধি পায়। এ নিয়ে উদ্বেগ বা আতংতিক হবার কিছু নেই। দেশের সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভাল অবস্থানে রয়েছে। তিনি বলেন, নারী নির্যাতন মামলা যা হয়ে থাকে তা নিম্নবিত্ত সম্প্রদায়ের মধ্যে এবং দেশে নির্দিষ্ট কয়েকটি জেলায় এর সংখ্যা বেশি। তবে অধিকাংশ মামলা গভীর তদন্ত করে দেখা যায়, একে অন্যকে ফাঁসানোর জন্য এসব মামলা হয়ে থাকে। তিনি উদাহরণ টেনে বলে মাদক সংক্রান্ত মামলার চার্জশিট হয় ৪০ শতাংশ। সেখানে নারী নির্যাতনের মামলার চার্জশিটের হার ৬ শতাংশ।
তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশ সদর দফতরের ক্রাইম সেকশনের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বলেন, বিগত কয়েক বছরের অপরাধ পরিসংখ্যান থেকে দেখা যায়, বছরের এপ্রিল থেকে আগস্ট পর্যন্ত সময় খুন, ধর্ষণ, নারী নির্যাতনের ঘটনা বাড়ে। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, এসময়টা থাকে ধান কাটার মৌসুম। তাই দেখা যায় এ ব্যাপারে গ্রামাঞ্চলে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা বেশি ঘটে।
আর তদন্তে দেখা গেছে ধর্ষণের অধিকাংশ অভিযোগই প্রেম-ভালবাসা জনিত। প্রেমে বিরোধ তৈরি হলেই কিংবা প্রতারিত হলে পারস্পারিক সম্মতির শারীরিক সম্পর্কও ধর্ষণের মামলায় গড়ায়। পরে দেখা যায় দু’পক্ষের মান-অভিমান কিংবা রাগ মিটে গেলে মামলা প্রত্যাহার করে নেয়। ফলে ধর্ষণের ক্ষেত্রেও খুব কমসংখ্যক চার্জশিট দেয়া সম্ভব হয়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY