অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্স ইন্ডাস্ট্রির সম্মাননা লাভ করলেন তামান্না মোনেম

ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট তামান্না মোনেম সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্স ইন্ডাস্ট্রির সম্মাননা লাভ করেছেন। ডিফেন্স কানেক্ট তাকে রাইজিং স্টার অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করেছে। এর আগে ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়া ইনডিয়া বিজনেস অ্যান্ড কমিউনিটি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছিলেন তামান্না মোনেম।

হাইলাইটস

২০২০ সালে ডিফেন্স কানেক্ট রাইজিং স্টার অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন তামান্না মোনেম।
২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়া ইনডিয়া বিজনেস অ্যান্ড কমিউনিটি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছিলেন তিনি।
কুইন্সল্যান্ডে উইমেন ইন বিজনেস ফর অস্ট্রেলিয়া ইনডিয়া বিজনেস কাউন্সিলের চেয়ার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন তামান্না মোনেম।

ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট তামান্না মোনেম বর্তমানে লিড ফর ইন্ডাস্ট্রি ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড ট্রেড হিসেবে কুইন্সল্যান্ডের ইপসউইচ সিটি কাউন্সিলে কাজ করেন।

অস্ট্রেলিয়ায় ২৬ বছর ধরে বসবাস করছেন তিনি। বৃত্তি নিয়ে পড়তে পড়তে কুইন্সল্যান্ড সরকারের স্টেট ডেভেলপমেন্ট এর পরে ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কুইন্সল্যান্ডে কাজ করার পর গত চার বছর ধরে তিনি ইপসউইচ সিটি কাউন্সিলে কাজ করছেন।

তিনি বলেন,

“গত ২০ বছরের উপরে আমার কাজ হচ্ছে আসলে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ডেভেলপমেন্ট। অস্ট্রেলিয়ায় ক্ষুদ্র, মধ্যম এবং বড় এন্টারপ্রাইজগুলোকে ওদের যে-সমস্ত চ্যালেঞ্জ রয়েছে সেগুলো বুঝা এবং ওদেরকে বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধার সঙ্গে সংযুক্ত করার কাজ করেছি আমি।”

“আমার কাজটা হচ্ছে বিভিন্নভাবে নতুন কোনো প্রোগ্রাম ডেভেলপ করা আর স্ট্রাটেজি ডেভেলপ করা, সেটাতে রিজিওনাল ছোট ব্যবসা, মধ্যম ব্যবসা, সেগুলো যেন বড় বড় প্রজেক্টের সুযোগ-সুবিধা পায়।”

রিজিওনাল ডিফেন্স ইন্ডাস্ট্রির বিকাশে তার অবদান রয়েছে। সম্প্রতি তিনি অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্স ইন্ডাস্ট্রির সম্মাননা লাভ করেছেন। ২০২০ সালে ডিফেন্স কানেক্ট তাকে রাইজিং স্টার অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করেছে।

তামান্না মোনেম বলেন,

“অ্যাওয়ার্ডটা আসলে পেয়েছিলাম: গত বছর কোভিড-১৯-এ অনেক ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল এবং ঐ ব্যবসাগুলোর সাথে, আমি প্রায় ৩০০ ব্যবসার সাথে কথা বলে ওদের সাথে যোগাযোগ করানো, যে-সমস্ত বড় বড় কর্পোরেট আছে, ওদের সাথে যোগাযোগ করিয়ে দেওয়ার একটা উদ্যোগ হাতে নিয়েছিলাম। তখন ইন্ডাস্ট্রি আমাকে নমিনেশন দেয়, ফাইনালিস্ট হলাম এবং অ্যাওয়ার্ডটা পেলাম।”

তিনি তার ভূমিকা সম্পর্কে আরও বলেন,

“অস্ট্রেলিয়ান ব্যবসাগুলো যেন প্রতিরক্ষা খাতে অংশগ্রহণ ও অবদান রাখতে পারে, প্রতিরক্ষা খাতের প্রতিটি সরঞ্জাম ও উপকরণ যেন অস্ট্রেলিয়াতেই উৎপাদিত হয় এবং যদি কিছু কখনও বাইরে থেকে আমদানি করতে হয়, সেক্ষেত্রেও যেন অস্ট্রেলিয়ার ব্যবসাগুলো একটি নির্দিষ্ট পর্যায় পর্যন্ত ভূমিকা রাখতে পারে।”

ডিফেন্স বা প্রতিরক্ষা খাতের বিষয়ে তিনি আরও বলেন,

“চাহিদা তৈরি করেছে সরকার। আমার কাজ হচ্ছে সেই চাহিদা অনুসারে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদেরকে তাদের সামর্থ্য বৃদ্ধি করে এই চাহিদার সঙ্গে তাদের সমন্বয়-সাধন করা। সেটা হচ্ছে এই ব্যবসাগুলোর সাথে তাদের সুযোগ-সুবিধাগুলোকে কাজে লাগানো।”

এছাড়া, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের মধ্যকার বাণিজ্য সম্পর্কের ক্ষেত্রেও তার ভূমিকা রয়েছে। এর স্বীকৃতি হিসেবে তিনি ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়া ইনডিয়া বিজনেস অ্যান্ড কমিউনিটি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছেন।

Add Comment