আনন্দ উৎসবে ঢাকা শহরের আকাশকে রাঙিয়ে তুলব : ডিএসসিসির মেয়র

আগামী ১৪ জানুয়ারি আনন্দ উৎসবের মাধ্যমে ঢাকা শহরের আকাশ রাঙিয়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। মঙ্গলবার দুপুরে নগর ভবনের মেয়র হানিফ অডিটোরিয়ামে সাকরাইন/ঘুড়ি উৎসব-১৪২৭ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস এ কথা বলেন।

ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস এ সময় আরো বলেন, আপনারা সবাই জানেন, আমার নির্বাচনী ইশতেহার আমি উল্লেখ করেছিলাম, ঐতিহ্যের ঢাকাকে আমরা গড়ে তুলব। আমাদের ঐতিহ্যের ঢাকার মূল উপাদান হচ্ছে আমাদের সংস্কৃতি এবং উৎসবগুলো। সাকরাইন/ঘুড়ি উৎসব আমাদের সংস্কৃতির একটি অঙ্গ। সে পরিপ্রেক্ষিতেই আমরা আগামী ৩০ পৌষ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭৫টি ওয়ার্ডেই প্রথমবারের মতো একযোগে সাকরাইন উৎসবের আয়োজন করতে যাচ্ছি। আমরা সাকরাইন/ঘুড়ি উৎসবকে শুধু ঢাকা শহরেই নয়, সারা বিশ্বে পৌঁছে দিতে চাই।

‘এসো ওড়াই ঘুড়ি, ঐতিহ্য লালন করি’ স্লোগানে আগামী ১৪ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো একযোগে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭৫টি ওয়ার্ডে সাকরাইন উৎসব আয়োজন করা হচ্ছে। দুপুর ২টা থেকে শুরু হয়ে উৎসব চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত।

আয়োজনের অংশ হিসেবে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭৫টি ওয়ার্ডের সাধারণ আসনের ৭৫ জন কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত আসনের ২৫ জন মহিলা কাউন্সিলরকে ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে ১০০ করে মোট ১০ হাজার ঘুড়ি সরবরাহ করা হয়েছে। কাউন্সিলররা সেগুলো তাঁদের নিজ নিজ ওয়ার্ডের জনসাধারণের মধ্যে বিলি করবেন, যারা কমিটির নির্ধারিত মাঠ বা বাড়ির ছাদে অবস্থান নিয়ে শূন্যে ঘুড়ি ওড়াবেন।

মেয়র তাপস ইট-পাথরের বেড়াজালে ঢাকাকে রুগণ সত্তায় পরিণত না করে ঐতিহ্য লালনে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা-৪ আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ এবং ডিএসসিসির কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Add Comment