ইউএনও ওয়াহিদার শারীরিক অবস্থার উন্নতি : চিকিৎসক

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমের শারীরিক অবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতালের নিউরো ট্রমা সার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. মোহাম্মদ জাহেদ হোসেন আজ মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেন, ‘তাঁর (ইউএনও) স্বাস্থ্যের সব প্যারামিটার উন্নতি হয়েছে এবং তিনি তরল খাবার গ্রহণ করছেন।’

ইউএনও শঙ্কামুক্ত কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. জাহেদ বলেন, ‘এটা বলা মুশকিল।‘

ডান হাত অবশের বিষয়ে এই চিকিৎসক বলেন, ‘আমরা আশা করি, ফিজিওথেরাপিতে তাঁর অবস্থার উন্নতি হবে, তবে কবে কতটুকু হবে, সেটা বলা কঠিন। হাতে উনার শক্তি নেই, কিন্তু বোধ আছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে ডা. জাহেদ বলেন, ‘আমরা তাঁকে বেডে দেওয়ার কথা চিন্তা-ভাবনা করছি। যেহেতু এখানে কিছু নিরাপত্তার প্রশ্ন আছে, সেজন্য আমরা তাঁকে এখনো এইচডিইউতেই রেখেছি। আগামীকাল বুধবার মেডিকেল বোর্ড বসে সিদ্ধান্ত নেবে তাঁকে কেবিনে বা বেডে পাঠানো হবে কি না।’

গত বুধবার রাত আড়াইটার দিকে দুর্বৃত্তরা ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদ চত্বরে ইউএনওর বাসার নাইটগার্ডকে বেঁধে রেখে পেছন দিকের ভেন্টিলেটর ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে এবং ইউএনও ওয়াহিদা ও তাঁর বাবা ওমরকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করে। পরে তারা জ্ঞান হারিয়ে ফেললে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

পরের দিন বৃহস্পতিবার সকালে আহতদের উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরে ইউএনও ওয়াহিদার অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে জরুরি ভিত্তিতে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়।

হামলার ঘটনায় দায়ের করা একটি মামলায় প্রধান আসামিসহ ১০ জন সন্দেহভাজনকে আটক করেছে পুলিশ।

Add Comment