চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী যাঁরা

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে ১৪টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড এবং ৪১টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ৩৯ ওয়ার্ডে (১৮ নম্বর পূর্ব বাকলিয়া ও ৩১ নম্বর আলকরণ ওয়ার্ড ছাড়া) কাউন্সিলর প্রার্থীদের ফল বেসরকারিভাবে প্রকাশ করা হয়েছে। এর মধ্যে, ১৮ নম্বর পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ। এ ছাড়া ৩১ নম্বর আলকরণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী তারেক সোলেমান সেলিমের মৃত্যুতে নির্বাচন স্থগিত করা হয়। নতুন তফসিল অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি।

এবার মেয়র পদের জন্য সাতজনসহ মোট প্রার্থী ছিলেন ২৩২ জন। ভোটার সংখ্যা সর্বমোট ১৯ লাখ ৩৮ হাজার ৭০৬ জন।

নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয় পেয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরী। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন তিন লাখ ৬৯ হাজার ২৪৮ ভোট। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫২ হাজার ৪৮৯ ভোট।

বিজয়ী কাউন্সিলর প্রার্থীরা হলেন :

ওয়ার্ড-১ : গাজী মো. শফিউল আজিম (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২ : সাহেদ ইকবাল বাবু (বিদ্রোহী)।

ওয়ার্ড-৩ : হাজী শফিকুল ইসলাম (বিদ্রোহী)।

ওয়ার্ড-৪ : এসরারুল হক (বিদ্রোহী)।

ওয়ার্ড-৫ : কাজী নুরুল আমিন (মামুন) (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৬ : আশরাফুল আলম (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৭ : মোবারক আলী (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৮ : মোরশেদ আলম (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৯ : জহুরুল আলম জসিম (বিদ্রোহী)।

ওয়ার্ড-১০ : নিছার উদ্দীন আহমেদ (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-১১ : মোহাম্মদ ইসমাইল (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-১২ : মো. নুরুল আমিন (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-১৩ : ওয়াসিম উদ্দীন চৌধুরী (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-১৪ : আবুল হাসনাত মোহাম্মদ বেলাল (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-১৫ : মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দীন (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-১৬ : সায়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-১৭ : শহীদুল আলম (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-১৯ : নুরুল আলম মিয়া (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২০ : চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২১ : শৈবাল দাস সুমন (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২২ : মোহাম্মদ সলিম উল্লাহ বাচ্চু (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২৩ : মোহাম্মদ জাবেদ (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২৪ : নাজমুল হক ডিউক (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২৫ : বদুস সবুর লিটন (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২৫ : মোহাম্মদ হোসেন (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২৭ : জাফরুল হায়দার চৌধুরী (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২৮ : নজরুল ইসলাম বাহাদুর (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-২৯ : গোলাম মোহাম্মদ জোবায়ের (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৩০ : আতাউল্লাহ চৌধুরী (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৩২ : জহর লাল হাজারী (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৩৩ : হাসান মুরাদ বিপ্লব (বিদ্রোহী)।

ওয়ার্ড-৩৪ : আওয়ামী লীগের পুলক খাস্তগীর (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৩৫ : হাজী নুরুল হক (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৩৬ : মো. মোরশেদ আলী (বিদ্রোহী)।

ওয়ার্ড-৩৭ : আব্দুল মান্নান (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৩৮ : গোলাম মোহাম্মদ চৌধুরী (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৩৯ : জিয়াউল হক সুমন (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৪০ : আব্দুল বারেক (আওয়ামী লীগ)।

ওয়ার্ড-৪১ : সালেহ আহমদ চৌধুরী (আওয়ামী লীগ)।

সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে জয়ীরা হলেন :

১. ফেরদৌস বেগম মুন্নি।

২. জোবাইরা নার্গিস।

৩. জেসমিন পারভীন জেসি।

৪. তছলিমা বেগম

৫. আঞ্জুমান আরা।

৬. শাহীন আক্তার চৌধুরী।

৭. রুমকি সেনগুপ্ত।

৮. নীলু নাগ।

৯. জাহেদা বেগম পপি।

১০. হুরে আরা বেগম।

১১. ফেরদৌসি আকবর।

১২. আফরোজা বেগম।

১৩. লুৎফুন্নেছা দোভাষ বেবী।

১৪. শাহানুর বেগম।

এর আগে গতকাল বুধবার (২৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে একটানা চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। বিকেল ৪টায় ভোট গ্রহণ শেষে নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়াম জিমনেসিয়াম হলে ভোট গণনা শুরু হয়।

Add Comment