প্যারামাটায় এ বছরের ইয়াং অ্যাডাল্ট সিটিজেন অফ দ্য ইয়ার ফাইনালিস্ট অ্যাওয়ার্ড পেলেন সারণী রায়

এ বছর সিটিজেন অফ দ্য ইয়ার ইয়াং অ্যাডাল্ট ফাইনালিস্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন সারণী রায়।
সমাজে শান্তি এবং সামাজিক-ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য ২০২০ সালে তিনি সারণী রায় ফাউন্ডেশন গঠন করেন তিনি।
গত ২১ জানুয়ারি ২০২১ সিডনির রোজহিলের রোজহিল গার্ডেন্স রেসকোর্সে এক অনুষ্ঠানে লর্ড মেয়র অভ প্যারামাটা, কাউন্সিলর বব ডোয়ার লোকাল কমিউনিটিতে অবদান রাখার জন্য অ্যাওয়ার্ড প্রদান করেন।

অস্ট্রেলিয়ান অভিনেত্রী, মিজ ইনডিয়া অস্ট্রেলিয়া গুডউইল অ্যামবাসাডর সারণী রায় লোকাল কমিউনিটিতে দীর্ঘদিন ধরে নানাভাবে অবদান রাখার স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর সিটিজেন অফ দ্য ইয়ার ইয়াং অ্যাডাল্ট ফাইনালিস্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন।

সারণী রায় বলেন,

“আমি যে ক্ষেত্রে কাজ করি এটা বিশ্বশান্তির জন্য। আর্ট এবং বহুসাংস্কৃতিক কার্যক্রমের মাধ্যমে বিশ্বশান্তি।”

২০-৩৯ বছর বয়সী নাগরিকরা যারা লোকাল কমিউনিটিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখেন, তারাই মূলত এই অ্যাওয়ার্ডের জন্য বিবেচিত হয়ে থাকেন।

সারণী রায়ের জন্ম ভারতের জামশেদপুরে ও পড়াশোনা মুম্বাই-এ। সেখানে তিনি সাংবাদিকতা করেছেন। অস্ট্রেলিয়ায় আসার পর তিনি শিক্ষকতা করেছেন। অভিবাসীদেরকে ইংরেজি পড়াতেন।

ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েও তিনি দমে যান নি। তিনি প্রাতিষ্ঠানিকভাবে অভিনয় শিখেন ও অভিনেত্রী হিসেবে কাজ করা শুরু করেন। এক পর্যায়ে তিনি মডেলিং-এর জগতেও প্রবেশ করেন।

সমাজে শান্তি এবং সামাজিক-ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য ২০২০ সালে তিনি সারণী রায় ফাউন্ডেশন গঠন করেন।

তিনি বলেন,

“(প্যারামাটা কাউন্সিল এলাকায়) আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ লোকের আমাদের নিজেদের দেশে যুদ্ধ-বিগ্রহের অভিজ্ঞতা রয়েছে। তাই, সারণী রায় ফাউন্ডেশন মূলত একটি সোশাল এন্টারপ্রাইজ। বৈচিত্র, সাসটেইনেবিলিটি এবং সামাজিক ন্যায়-বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য এটি কাজ করে।”

নারী নেতৃত্বের বিকাশেও তিনি অবদান রাখতে চান। এ রকম একটি কার্যক্রমে তিনি অংশ নিয়েছেন, যেটি এ বছরের মার্চে আন্তর্জাতিক নারী দিবসে শুরু করা হবে।

তিনি বলেন,

“এই দশকে নারী নেতৃত্ব অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।”

Add Comment