‘ভালো আছি’ বলছেন ট্রাম্প, উপসর্গ ‘মারাত্মক’ বলছে হোয়াইট হাউস

নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ‘ভালো আছেন’ বলে জানিয়েছেন। প্রথমে হোয়াইট হাউসে থাকলেও পরে ট্রাম্পকে একটি সামরিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে তাঁর চিকিৎসা চলছে।

মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পসহ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের করোনা শনাক্ত হয় গতকাল শুক্রবার। এরপর ট্রাম্প এ ভিডিওবার্তায় ‘ভালো আছেন’ বলে জানালেও হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা ট্রাম্পের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে ভিন্ন তথ্য দিয়েছেন। মেলানিয়ার চেয়ে ট্রাম্পের উপসর্গগুলো ‘মারাত্মক’ বলে জানান তাঁরা।

সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে হাসপাতালে গিয়েছেন জানিয়ে ট্রাম্প এক সংক্ষিপ্ত ভিডিওবার্তায় সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। ট্রাম্প বলেন, ‘আমি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছি। তবে আমি ভালোই আছি। চিকিৎসায় যাতে কোনো সমস্যা না হয়, আমরা সেটা নিশ্চিত করছি। মেলানিয়াও ভালো আছে।’

ট্রাম্প আরো বলেন, ‘আমি ওয়াল্টার রিড হাসপাতালে যাচ্ছি। আমি মনে করি, আমি অনেক সুস্থ রয়েছি।’

এর আগে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় দেখা যায়, হোয়াইট হাউস থেকে বেরিয়ে আসছেন ট্রাম্প। তাঁর মুখে মাস্ক রয়েছে। তারপর একটি হেলিকপ্টারে করে তাঁকে ওয়াশিংটনের বাইরে ওয়াল্টার রিড মিলিটারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই ভর্তি রয়েছেন ট্রাম্প।

হাসপাতাল থেকে টুইটারে একটি ১৮ সেকেন্ডের ভিডিও বার্তা দেন ট্রাম্প।

এদিকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী গণমাধ্যম সিএনএনের হোয়াইট হাউসবিষয়ক প্রধান জিম অ্যাকস্টা আজ শনিবার সকালে বেশ কয়েকটি টুইটে জানান, ট্রাম্পের অবস্থা ‘গুরুতর’।

অ্যাকস্টা লেখেন, ‘ট্রাম্পের শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগের কারণ রয়েছে। এটা মারাত্মক, গুরুতর।’

সূত্রের বরাত দিয়ে অ্যাকস্টা বলেন, ‘ট্রাম্প অনেক ক্লান্ত, অনেক দুর্বল এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যায় ভুগছেন।’

অন্যদিকে হোয়াইট হাউস কর্তৃপক্ষ অনবরত বলছে, অচিরেই ডোনাল্ড ট্রাম্প সুস্থ হয়ে উঠবেন।

Add Comment