মাছ ধরতে গিয়ে লাশ হলেন দুই বাংলাদেশী

সিডনির ল্যাকাম্বার মাহি হালাল বুচারি ও ঘরোয়া কিচেন এর অন্যতম স্বতাধিকারী ও সৌখিন মৎস শিকারী মাহাদী খান ও মোজাফফর আহাম্মেদ নামে দুই বাংলাদেশী সিডনির অদূরে পোর্ট কেম্বলার ফিশারম্যানস বিচের কাছের হিল 60 নামক স্হানে মাছ ধরতে গিয়ে গত ১২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টায় দিকে সমুদ্রের ঢেউয়ের ধাক্কায় পানিতে পড়ে মারা গেছেন। ঘটনার সময় মাহাদী খানের সাথে মোজাফফর আহাম্মেদ নামে এক বাংলাদেশীসহ আরো এক জন পানিতে পড়ে যায় । সার্ফ,পুলিশ ও উদ্ধারকর্মীদের যৌথ দল তাদেরকে সমুদ্র থেকে উদ্ধার করে পোর্ট কেম্বলার সৈকতে নিয়ে যায়। তাদের মধ্যে

মাহাদী খানকে সিপিআর দেওয়া হলেও তিনি ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। মোজাফফর আহাম্মেদকে ওলংগঙ্গ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্হায় মৃত্যুবরন করেন। সৌভাগ্যক্রমে তৃতীয়জনকে অক্ষত অবস্হায় উদ্বার করা হয়। ঐ স্হানে মাত্র তিন সপ্তাহ আগে আরো ঠিক তিন ব্যক্তি ঠিক একইভাবে মারা যায়।মাহাদী খান, বাবা-মায়ের এক ছেলে এবং সম্প্রতি বিয়ে করেছিলেন, তার স্ত্রী বাংলাদেশে রয়েছে বলে জানা গেছে । সন্তানের আকস্মিক মৃত্যু তার বাবা গুরুতর অসুস্হ হয়ে পড়েছেন এবং তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অন্যদিকে মোজাফফর আহাম্মেদ সিডনির ল্যাকেম্বার একটি বাংলাদেশী গ্রোসারী শপে চাকুরী করতেন এবং পাশ্ববর্তী ওয়ালী পার্কে বসবাস করতেন।
একইদিনে একই স্হানে অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশীদের রাজধানী খ্যাত ল্যাকেম্বার পরিচিত দুই বাংলাদেশীর আকস্মিক মৃত্যুতে এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

(ছবি ফেসবুক হতে সংগৃহীত)

Add Comment