Home Melbourne-BD যখন টিপ বা বখশিশ দেয়ার প্রসঙ্গ আসে, অস্ট্রেলিয়া বিভক্ত হয়ে যায়। কাকে...

যখন টিপ বা বখশিশ দেয়ার প্রসঙ্গ আসে, অস্ট্রেলিয়া বিভক্ত হয়ে যায়। কাকে কখন টিপ দিতে হবে সে বিষয়ে অনেকে বিভ্রান্ত, এমনকি অস্ট্রেলিয়াতে জন্ম নেয়া লোকেরাও। এই সপ্তাহের সেটেলমেন্ট গাইডে অস্ট্রেলিয়ার বখশিশ দেয়ার সংস্কৃতিকে ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলো

  • অস্ট্রেলিয়ায় বখশিশ দেয়া নিয়ে অনেক বিভ্রান্তি রয়েছে, এমনকি এ নিয়ে মতবিরোধও দেখা যায়
  • ‘অস্ট্রেলিয়ায় বখশিশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণভাবে ব্যক্তির উপর নির্ভর করে’
  • করোনা মহামারীর কারণে নগদ বখশিশ দেয়ার প্রবণতা হ্রাস পেয়েছে

টিপ বা বখশিশ হল ভাল সার্ভিসের পুরস্কার হিসাবে কর্মীদের একটি আর্থিক উপহার। এটি নগদ বা ক্যাশলেস পেমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে দেয়া যেতে পারে।

অস্ট্রেলিয়ায় এনিয়ে অনেক বিভ্রান্তি রয়েছে, এমনকি বখশিশ দিতে হবে কিনা তা নিয়ে মতবিরোধও দেখা যায় – কখনও কখনও এটিকে ‘গ্রাচুইটি’ বলা হয়।

বখশিশ নিয়ে আমাদের বিভ্রান্তি আসলে বিভিন্ন দেশের সাংস্কৃতিক বিভিন্নতার কারণে। মি. বিল ডি অস্ট্রেলিয়ান কম্পিটিশন অ্যান্ড কনজিউমার কমিশনের সাথে অনেক বছর কাজ করেছেন।settlement guidePaying a tipGetty Images/xavierarnau

তিনি বলছেন, “টিপ দেওয়া একটি সাংস্কৃতিক বিষয়। উদাহরণস্বরূপ, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এটি বাধ্যতামূলক। অনেক জায়গায় প্রত্যাশা করা হয় ট্যাক্সিতে উঠলে আপনি টিপ দেবেন। তবে অস্ট্রেলিয়াতে টিপ দেয়া ঐচ্ছিক।”

মিঃ ডি বলেছেন, অস্ট্রেলিয়ায় বখশিশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণভাবে ব্যক্তির উপর নির্ভর করে। বখশিশ দেবেন কিনা তা নির্ভর করবে আপনি সার্ভিস পেয়ে খুশি কিনা।

অস্ট্রেলিয়ায় বখশিশ দিতে অনেকেই আপত্তি করেন। তারা এটিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশগুলির থেকে আসা একটি অপ্রয়োজনীয় সাংস্কৃতিক প্রভাব হিসাবে দেখে, কারণ সেখানে সার্ভিস কর্মীদের কাজের শর্তগুলো ভিন্ন।

ক্যাম স্মিথ রেডিও স্টেশন থ্রীআরআরআর (3RRR)-এ অস্ট্রেলিয়ার দীর্ঘতম চলমান ফুড শো-এর নির্মাতা।

তিনি বলছেন, “অস্ট্রেলিয়ায় মজুরি কাঠামোর কারণে আপনি টিপ দিতে বাধ্য নন। অস্ট্রেলিয়ায় বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় ন্যূনতম মজুরি মোটামুটি ভালো।”

মি. ডি বলেন, সাধারণত মনে করা হয় যে প্রতিদিনের সার্ভিসের জন্য বখশিশ সংস্কৃতি প্রচার করার দরকার নেই।

আপনি যদি রেস্তুরাঁয় খাবার খাওয়ার পরে বখশিশ দিতে চান তবে খাবারের পরে টেবিলে বা কাউন্টারে একটি টিপ জারে নগদ অর্থ দিতে পারেন। ক্রেডিট কার্ড পেমেন্টে বখশিশও যোগ করতে পারেন।

সেই বখশিশ রেস্তোরাঁর মালিকরা তাদের কর্মীদের দেবেন বলে প্রত্যাশা করা হয়।

সুতরাং, যদি আমরা ভাল পরিষেবার জন্য কাউকে পুরস্কৃত করতে চাই, তাহলে আমাদের কতটা বখশিশ দেওয়া উচিত? এটি সম্পূর্ণভাবে ব্যক্তির উপর নির্ভর করে।Tip AustraliaTaxi drivers do not expect a tip in AustraliaGetty Images/wagnerokasaki

তবে ক্যাম স্মিথ বলছেন, এক্ষেত্রে কিছু স্বীকৃত গাইডলাইন রয়েছে। অস্ট্রেলিয়ায় ভালো সার্ভিসের জন্য ১০ শতাংশ বখশিশ দেয়ার নিয়ম আছে।

মহামারীর পর থেকে, আতিথেয়তা এবং পরিষেবা খাতকে সাহায্য করতে অস্ট্রেলিয়ার বখশিশ সংস্কৃতি প্রভাবিত হয়েছে।

রেস্তোরাঁর সাথে গ্রাহকদের সংযোগ করতে সাহায্য করে ওপেনটেবলস (OpenTables) নামে একটি কোম্পানি। তারা নিয়মিত গ্রাহকদের অভ্যাস এবং প্রত্যাশার উপর জরিপ করে থাকে। তাদের সর্বশেষ গবেষণায় দেখা গেছে যে মহামারীতে অস্ট্রেলিয়ার আতিথেয়তা শিল্পে বখশিশ সংস্কৃতির পরিবর্তন ঘটেছে।

রবিন চিয়াং ওপেনটেবলসের আন্তর্জাতিক বাজার পরিচালনা করেন। তিনি বলছেন ঐতিহাসিকভাবে অস্ট্রেলিয়ান বখশিশ সংস্কৃতি কখনো শক্তিশালী ছিল না।Getty Images/Oscar WongOrdering food with phoneGetty Images/Oscar Wong

মহামারীর কারণে নগদ বখশিশ দেয়ার প্রবণতা হ্রাস পেয়েছে। এর পরিবর্তে আমরা বরং এফটপোস (eftpos) পেমেন্ট, কিউআর কোড অর্ডার এবং রাইড শেয়ারিং এবং ফুড ডেলিভারি অ্যাপের ব্যবহার আরো বেশি দেখতে পাই।

এর মধ্যে সাধারণত অ্যাপের মাধ্যমে পেমেন্টের সময়ে টিপ দেয়ার উপায় অন্তর্ভুক্ত থাকে যা আপনাকে কর্মীদের পুরস্কৃত করতে অনুরোধ করতে পারে, এমনকি হিউম্যান ইন্টারঅ্যাকশন খুব কম থাকলেও।

মিঃ চিয়াং বলছেন, বিশ্বের যেসব দেশ সবচেয়ে বেশি কিউআর (QR) পেমেন্ট এবং অনলাইন অর্ডার করে তার মধ্যে অস্ট্রেলিয়া একটি। তবে, এই স্বয়ংক্রিয় প্রম্পটগুলোর মাধ্যমে টিপ দেওয়া বা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত একান্তই আপনার।

অস্ট্রেলিয়ায় ট্যাক্সি ড্রাইভাররা বখশিশ প্রত্যাশা না করলেও, ভাড়া দিতে গিয়ে অনেকেই রাউন্ড-আপ করে বা যাত্রীদের যে খুচরা পয়সাগুলো ফেরত পাওয়ার কথা তা সাধারণত তারা নেয় না।

তবে হেয়ারড্রেসার, বিউটিশিয়ান এবং হোটেল কর্মীরা টিপস প্রত্যাশা করেন না।

ক্যাম স্মিথ বলছেন, ফুড ডেলিভারি ড্রাইভারদের বখশিশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া অনেকের জন্য কঠিন।

তিনি বলছেন, “আমি ডেলিভারি কর্মীদের বখশিশ দেই কারণ আমরা জানি যে, তারা গিগ ইকোনমির জালে আটকে পড়েছে এবং তাদের এত অধিকার নেই এবং সম্ভবত কম বেতনে কাজ করছে৷ তাই আমি তাদের কাজের প্রকৃতি এবং মজুরি ব্যবস্থার কারণে তাদের বখশিশ দেওয়ার চেষ্টা করি।”

আপনি যদি আতিথেয়তা শিল্পকে সাহায্য করতে চান তবে আমাদের কিছু উদ্যোগ একটি বড় পার্থক্য গড়ে দিতে পারে, রবিন চিয়াং বলছেন।

তবে বখশিশ দেয়ার ক্ষেত্রে মতামত এবং অভ্যাস ক্ষেত্রভেদে ভিন্ন হলেও, এটা মনে রাখা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো যে অস্ট্রেলিয়াতে টিপিং সম্পূর্ণরূপে আপনার ইচ্ছার উপর নির্ভর করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here