১৩০ দেশে এখনো কাউকে টিকা দেওয়া যায়নি : ডব্লিউএইচও

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে, মাত্র ১০টি দেশে করোনার ভ্যাকসিনের ৭৫ শতাংশ যাচ্ছে, কিন্তু বিশ্বের প্রায় ১৩০টি দেশে এখনো একজনকেও টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া যায়নি। সংবাদ সংস্থা রয়টার্স ও আনাদোলু এজেন্সি এ খবর জানিয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জেনেভা সদর দপ্তরে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে গতকাল শুক্রবার মহাপরিচালক ড. টেড্রস আধানম গ্যাব্রিয়াসুস বলেন, বর্তমানে করোনায় সংক্রমিত রোগীর সংখ্যার চেয়ে টিকা নেওয়া মানুষের সংখ্যা এখন অনেক বেশিI অল্প সময়ে এটা বিরাট সাফল্য এক দিক থেকে অবশ্যই আনন্দের খবর। তবে প্রায় ১৩০টি দেশের প্রায় ২৫০ কোটি মানুষের মধ্যে এখনো একজনকেও ভ্যাকসিনের আওতায় আনা যায়নি।

ড. গ্যাব্রিয়াসুস তাঁর বক্তব্যে ধনী দেশগুলোকে তাদের স্বাস্থ্যকর্মী ও বয়স্কদের টিকাদান শেষে রয়ে যাওয়া ভ্যাকসিনগুলো দরিদ্র দেশগুলোকে দিয়ে সাহায্য করার আহ্বান জানানI

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক বলেন, ‘টিকা উৎপাদন ব্যাপক হারে বাড়ানো প্রয়োজন।’

‘গত সপ্তাহে সানোফি ঘোষণা দিয়েছে যে তারা ফাইজার/বায়োএনটেকের টিকার উৎপাদনে সহায়তা দিতে নিজেদের অবকাঠামো ব্যবহার করার সুযোগ দেবে। অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোকেও এই উদাহরণ অনুসরণের আহ্বান জানাচ্ছি।’

ফ্রান্সের সানোফি গত সপ্তাহে জানিয়েছিল, তারা আগামী জুলাই থেকে ফাইজারকে এই বছর ১০ কোটি ডোজের বেশি টিকা সরবরাহে সহায়তা দিতে চায়।

এ ছাড়া আরো একাধিক প্রতিষ্ঠান করোনার টিকা উৎপাদনে সহায়তা করতে এগিয়ে আসছে বলে রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, ফাইজারের টিকা উৎপাদনে সহায়তা করতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে সুইজারল্যান্ডের নোভারটিস। এ ছাড়া কিওরভ্যাক টিকা উৎপাদনে সাহায্য করবে বলে জানিয়েছে জার্মানির প্রতিষ্ঠান বায়ার।

Add Comment