৩ হাসপাতাল ঘুরেও চিকিৎসা পায়নি যমজ, লাশ নিয়ে বাবা হাইকোর্টে

চিকিৎসা না পেয়ে দুই নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় রাজধানীর তিনটি হাসপাতালের পরিচালককে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে চিকিৎসা না দেওয়ার ঘটনায় তাঁদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হবে না, এ মর্মে রুল জারি করা হয়েছে।

তিন হাসপাতাল ঘুরে বিনা চিকিৎসায় মারা যাওয়া যমজ দুই নবজাতক সন্তানের লাশ নিয়ে আজ রোববার বাবা আবুল কালাম ন্যায়বিচার চেয়ে হাইকোর্টের দারস্থ হন। পরে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এ বিষয়ে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিন উদ্দিন মানিক এনটিভি অনলাইনকে বলেন, সন্তানদের বাবা ভুক্তভোগী আবুল কালাম সুপ্রিম কোর্টের একজন কর্মচারী। চিকিৎসা না পেয়ে তাঁর দুটি সন্তান মারা যায়। এ ঘটনায় হাইকোর্ট রুল জারি করেছেন। এবং ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হাসপাতালের পরিচালকদের ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

পরে সন্তানদের বাবা ভুক্তভোগী সুপ্রিম কোর্টের কর্মচারী আবুল কালাম সাংবাদিকদের জানান, তাঁর যমজ সন্তান দুটি ছয় মাসের মাথায় (২৪ সপ্তাহ) আজ রোববার হাসপাতালে যাওয়ার পথে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় জন্মগ্রহণ করে। এ অবস্থায় তাদের মুগদা ইসলামিয়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার হয়। সেখানে তাদের ভর্তি না নিয়ে নবজাতকদের নিয়ে শ্যামলী শিশু হাসপাতালে যেতে বলা হয়।

শ্যামলী শিশু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও শিশু দুটির ভর্তি নেয়নি। পরে নবজাতকদের নিয়ে বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে যান। সেখানেও বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে ভর্তি নেওয়া হয়নি। হাসাপতালের সামনে ভর্তির জন্য অপেক্ষমাণ থাকাবস্থায় বাচ্চা দুটি মারা যায়। পরে তিনি হাসপাতাল থেকে নবজাতক নিয়ে সরাসরি হাইকোর্টে আসেন এবং বিষয়টি আদালতের নজরে আনেন।

Add Comment