সিডনি ঢাকা পড়েছে ধোঁয়ায়

অস্ট্রেলিয়ার সিডনির আকাশ আজ মঙ্গলবার ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন। রাতভর প্রচণ্ড বাতাস ছিল। আবহাওয়া বিভাগ বলছে, বায়ুদূষণের মাত্রা ঝুঁকিপূর্ণ। এতে চোখ জ্বালাপোড়া করা এবং নাক ও গলায় অস্বস্তিকর অনুভূতির মতো উপসর্গ দেখা দিয়েছে।

বিবিসি অনলাইনের খবরে জানানো হয়, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সিডনির মানুষ কুয়াশাচ্ছন্ন আকাশ ও বাড়িতে কটু গন্ধে ভরা ধোঁয়ার কথা লিখেছেন। সিডনির নীল আকাশ এখন ধূসর।

সিডনির রাজধানী নিউ সাউথ ওয়েলসে ৫০ লাখ মানুষের বাস। এই এলাকায় কয়েক সপ্তাহ ধরে দাবানলের প্রভাব ছিল। নিউ সাউথ ওয়েলসের উত্তরে গত অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া দাবানলে ছয়জনের প্রাণহানি হয়েছে।

সিডনির বাসিন্দাদের মঙ্গলবার অগ্নিকাণ্ডের ব্যাপারে সতর্ক করা হয়েছে। আবহাওয়া বিভাগ বলছে, সিডনির পশ্চিমে তাপমাত্রা ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস হতে পারে।
সিডনির বিভিন্ন এলাকায় বায়ুদূষণ নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে বেশি পরিমাণে রেকর্ড করা হয়েছে। আটবার এমন ঘটনা ঘটেছে।

এএফপির খবরে জানা যায়, স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা সিডনিবাসীকে ঘরের ভেতর থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। কায়িক শ্রমের কাজ এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে। নিউ সাউথ ওয়েলসের অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা বলছে, শ্বাসপ্রশ্বাস-সংক্রান্ত জটিলতা যাদের রয়েছে, তাদের বিশেষ যত্নে থাকতে হবে।

সিডনির অপেরা হাউস ধোঁয়ায় ঢাকা। ছবি: এএফপি

সিডনির অপেরা হাউস ধোঁয়ায় ঢাকা। ছবি: এএফপিনিউ সাউথ ওয়েলস রুরাল ফায়ার সার্ভিস সতর্কতা জারি করে বলেছে, আগামী কয়েক দিনে ধোঁয়া চারদিকে ছড়িয়ে যাবে। গত সপ্তাহে সিডনিতে দাবানল হয়। এর উপকণ্ঠ ও আশপাশের এলাকা ধোঁয়ায় ছেয়ে যায়।

কর্তৃপক্ষ বলছে, ওয়ালামাই ন্যাশনাল পার্ক আগুনের উৎসস্থল। এটি সিডনি থেকে ১৫০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে। আকারে প্রায় 1 লাখ ৫০ হাজার হেক্টরের মতো।

সিডনির উত্তরে উপকূলীয় এবং দ্বীপের এলাকাগুলোতে ৫০-এর কাছাকাছি দাবানল হয়েছে। এসব এলাকার ঘর কয়েক সপ্তাহ ধরে ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন ছিল।

কর্তৃপক্ষ সতর্কতা জারি করে বলেছে, এ সপ্তাহে কুইন্সল্যান্ডে তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। সেখানে দাবানল হতে পারে।

Add Comment