নতুন বই পেয়ে ওরা খুব খুশি

প্রতিবন্ধী শিশুরা এখন পরিবার ও সমাজের বোঝা নয়। সরকার এদেরকে শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ করে দিয়েছে। দিয়েছে শিক্ষা গ্রহণ শেষে কর্মসংস্থানের সুযোগ। এমনটাই বলছিলেন গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা শংকর কুমার বিশ্বাস।

আজ বুধবার কোটালীপাড়া উপজেলার কান্দি গ্রামে অবস্থিত শেখ ফজলুর রহমান মারুফ প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে বই বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। শংকর কুমার বিশ্বাস বিদ্যালয়টির ১৬২ শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দেন। নতুন বই পেয়ে এসব শিক্ষার্থী খুশি হয়েছে। খুশি হয়েছেন এদের অভিভাবকরাও।

বিদ্যালয়টির সভাপতি মন্মথরঞ্জন বাড়ৈ মন্টুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বই বিতরণ অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক উৎপল কুমার বালা, সমাজসেবক রতন অধিকারী, বিশ্বনাথ রায়, ইউপি সদস্য সিদ্ধার্থ বাড়ৈ বক্তব্য রাখেন।

বই নিতে আসা অভিভাবক বিলকিস বেগম বলেন, আমার সন্তানকে নিয়ে এত দিন খুব চিন্তায় ছিলাম। কিভাবে আমার সন্তানকে লেখাপড়া শেখাব। এখানে বিদ্যালয়টি হওয়ায় আমরা চিন্তামুক্ত হয়েছি। আমার সন্তানকে এই বিদ্যালয়ে ভর্তি করিয়েছি। আজ আমার সন্তান নতুন বই পেল। নতুন বই পেয়ে আমার সন্তান ও আমি খুবই খুশি হয়েছি।

বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক উৎপল কুমার বালা বলেন, বছরের প্রথম দিন আমরা এই শিশুদের হাতে বই তুলে দিতে পেরে ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে আমরাও আনন্দিত। তবে আমাদের এই বিদ্যালয়টি এখনো এমপিও ভুক্ত হয়নি। আমরা কোনো সরকারি সুযোগ সুবিধা পাচ্ছি না। দ্রুততার সাথে আমাদের বিদ্যালয়টি এমপিওভুক্ত করার দাবি জানাচ্ছি।

Add Comment