প্রণব এখনও ভেন্টিলেশনে, হৃদ্‌যন্ত্রের কাজ, রক্ত সঞ্চালন, রক্তচাপ স্থিতিশীল

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা এখনও সঙ্কটজনক। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিকে এখনও ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে। আজ দিল্লির সেনা হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, ‘‘প্রণব মুখোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা এখনও সঙ্কটজনক অবস্থাতেই রয়েছে। বর্তমানে তাঁর হৃদ‌্‌যন্ত্রের কাজ, শরীরে রক্ত সঞ্চালন, রক্তচাপ স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছে।’’

বুধবার সকালে প্রণব-কন্যা শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায় আবেগঘন ভাষায় টুইট করে বলেন, ‘‘ওঁর জন্য যেটা মঙ্গলের হয়, ঈশ্বর ঠিক সেটাই করুন। আমাকেও জীবনের সুখ ও দুঃখ একই ভাবে গ্রহণ করার শক্তি দিন।’’

রাতে টুইট করে ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘সকলের প্রার্থনায় আমার বাবার হৃদ‌্‌যন্ত্রের কাজ, শরীরে রক্ত সঞ্চালন, রক্তচাপ স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছে। সকলের কাছে অনুরোধ, আপনারা প্রার্থনা করুন, আমার বাবা যাতে তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ওঠেন।’’

রবিবার রাতে বাড়িতে পড়ে যাওয়ার পরে প্রণবকে দিল্লির সেনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তাঁর মস্তিষ্কে জমাট বাঁধা রক্ত সরাতে অস্ত্রোপচার করার আগে পরীক্ষা করতে গিয়ে শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি মেলে। গত কাল হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছিল, ৮৪ বছর বয়সি প্রণবের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। অস্ত্রোপচারের পর থেকে তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি বলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিলেন। এর পরে তাঁর স্বাস্থ্য নিয়ে সকলেই উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠেন।

গত বছর মোটামুটি এই সময়েই প্রণববাবুকে দেশের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান ভারতরত্ন দেওয়া হয়েছিল। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের হাত থেকে এই সম্মান পেয়েছিলেন প্রবীণ এই রাজনীতিবিদ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উপস্থিত থেকে প্রণববাবুর প্রশংসা করেছিলেন। সেই অনুষ্ঠানে ছিলেনও শর্মিষ্ঠা। আজ সকালে নিজের টুইট-পোস্টে সেই ঘটনারই স্মৃতিচারণ করেছেন তিনি।

শর্মিষ্ঠা লিখেছেন, ‘‘গত বছরের ৮ অগস্ট আমার জন্য জীবনের অন্যতম আনন্দের দিন ছিল। বাবা সে দিন ভারতরত্ন পেয়েছিলেন। এক বছর পরে, ১০ অগস্ট তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লেন। ওঁর জন্য যেটা মঙ্গলের হয়, ঈশ্বর ঠিক সেটাই করুন। আমাকেও জীবনের সুখ ও দুঃখ একই ভাবে গ্রহণ করার শক্তি দিন।’’

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের অসুস্থতার খবর জানার পর থেকেই দেশের তাবড় নেতা-মন্ত্রী ও নাগরিকেরা সোশ্যাল মিডিয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ফোনে কথা বলেছেন শর্মিষ্ঠার সঙ্গে। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ নিজেই হাসপাতালে গিয়েছিলেন। সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি আজ আশা প্রকাশ করেন, প্রণববাবু যেমন তাঁর রাজনৈতিক জীবনে লড়াকু মানুষ ছিলেন, একই ভাবে শারীরিক অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই করে তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরবেন। কেন্দ্রীয় সরকারের শীর্ষ স্তর থেকে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির স্বাস্থ্যের বিষয়ে নিয়মিত খোঁজ রাখা হচ্ছে বলে সরকারি সূত্রের খবর।

Add Comment