নিউজিল্যান্ডে নিহত ব্যক্তিদের জাতীয়ভাবে স্মরণ

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে ১৫ মার্চের হামলা ঘটনায় নিহত ব্যক্তিদের জাতীয়ভাবে স্মরণ করে তাঁদের উদ্দেশে সম্মান জানানো হয়েছে। ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদের পাশে হ্যাগলি পার্কে আজ শুক্রবার আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ২০ হাজারের বেশি মানুষ যোগ দেন।

এ সময় সেখানে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন মুসলিম নেতা ও হামলায় বেঁচে যাওয়া ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে জাতীয় টেলিভিশনে ভাষণ দেন।

১৯৭০ সালে ধর্মান্তরিত হয়ে মুসলিম হওয়া জনপ্রিয় ব্রিটিশ শিল্পী ক্যাট স্টিভেন্স এই অনুষ্ঠানে গান করেন। উপস্থিত জনতাদের প্রতি আরডার্ন বলেন, ‘আমরা যেমন রাষ্ট্র কামনা করি, নিউজিল্যান্ড সে বিষয়ে দায়িত্বশীল। ঘৃণা বা ভয়ের মতো ভাইরাস থেকে আমরা এখনো মুক্ত হতে পারিনি, কখনো নিরাপদও ছিলাম না। কিন্তু আমরা এর প্রতিষেধক খুঁজে বের করতে পারি।’

হামলায় ফরিদ আহমেদ অল্পের জন্য বেঁচে গেলেও নিস্তার পাননি তাঁর স্ত্রী হুসনা। শান্তির লক্ষ্যে তিনি ওই বন্দুকধারীকে ক্ষমা করে দিয়েছেন জানিয়ে ফরিদ বলেন, ‘আমি আগ্নেয়গিরির মতো জ্বলন্ত কোন হৃদয় চাই না। আমি চাই ভালোবাসা, ক্ষমা ও হৃদ্যতায় পরিপূর্ণ একটি হৃদয়।’

ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করা ব্রিটিশ সঙ্গীতশিল্পী স্টিভেন্সের মুসলিম নাম এখন ইউসুফ ইসলাম। তিনি এই অনুষ্ঠানে “পিস ট্রেইন” এবং “ডোন্ট বি সাই” শিরোনামে দু’টি গান করেন এবং উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘যখন ভালো মানুষেরা হাত পা গুটিয়ে বসে থাকে, কেবল তখনই অশুভশক্তি মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। আমাদের দেশে আমরা এর বিপরীত চিত্র দেখছি।’

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদে ১৫ মার্চ বন্দুকধারীর হামলায় ৫০ জন নিহত হয়। পর আজ থেকে মসজিদটি খুলে দেওয়া হচ্ছে।

Add Comment